Solution of the problem Life,the Universe and Everything in two new programming language

Ok, I just solved the problem stated in http://www.codechef.com/problems/TEST by using two new programming language, Go and Lua.
Here goes the code,
GO:

package main

import "fmt"

func main() {
for value := 0; ; {
fmt.Scanln(&value)
if value == 42 {
break
}
fmt.Println(value)

}
}

And now for Lua:

local ans
ans = io.read()
ans = tonumber(ans)
while ans ~= 42 do
print(ans)
ans = io.read()
ans = tonumber(ans)
end

Well I admit, lua is a true beauty, where Go looks like a rough one.   Be with me via twitter to know my micro thoughts.

মির কাশেম ভালা লোক!

আজকে এক লোকের সাথে তর্ক হচ্ছিল
- মীর কাশেমের ফাসী চাননা আপনে
- উনি একজন শিল্পপতি। ভদ্রলোক
- সে রাজাকার
- অসম্ভব। এটা চক্রান্ত করে তাকে ফাসানো হয়েছে
খুব কষ্ট লেগেছিল একজন বাঙ্গালীর মুখে রাজাকারের প্রশংসা শুনে। বাদ দেন কিছু ঘটনা বলি

মানিকগঞ্জের সরকারি কর্মচারী বাবার মেঝ ছেলে ছিল মীর কাশেম ,ডাকনাম পিয়ারু। আবার মিন্টুও ডাকত। যুদ্ধের আগে বাবার চাকরির সুবাদে চট্টগ্রামে চলে আসে। চট্টগ্রামে কলেজে থাকতেই জামায়াতের রাজনিতীর সাথে যুক্ত কাশের একাত্তরে চট্টগ্রামের রাজাকার বাহিনীর প্রধান নিযুক্ত হয়। শুরু হয় এক নরপশুর তান্ডবলীলা

একাত্তরে যুদ্ধ শুরুর পর চট্টগ্রামের হারুনুর রশীদ মুক্তিযোদ্ধাদের সংগঠনের কাজে নিজেকে জড়িয়ে ফেলে। দু চোখে স্বাধীন বাংলাদেশের স্বপ্ন। থাকত আন্দরকিল্লায়। তার সে বাসায় একটা বিরাট চুলায় দুই বেলা মুক্তিযোদ্ধাদের জন্য খিচুরী রান্না হত। নিজের হাতে পরিস্কার করে তেল আর গ্রিজ মাখিয়ে রাইফেলগুলাকে চালু রাখতেন। মুক্তিবাহিনীর বিচ্ছুরা তাকে সম্মান করে ডাকত হারুন ভাই। একদিন চায়ের দোকান থেকে হারুনকে রশীদ কে ধরে নিয়ে যায় মীর কাশেম সহ চার পাচজন। মীর কাশেমের টর্চার সেল ছিল ডালিম হোটেল। ডালিম হোটেলে আটকে রেখে তিন চার দিন অমানুষিক নির্যাত ন করা হয় হারুনুর রশীদকে। শর্ত দেয়া হয় মুক্তিবাহিনীর তথ্য ফাস করে দিলে তাকে ছেড়ে দেয়া হবে। কিন্তু এটা বাঙ্গালীর পোলা। ভাংবে তবু মচকাবে না। শেষে না পেরে মীর কাশেম চিমটা দিয়ে টেনে হারুনুর রশীদের চোখ তুলে ফেলে। বাকি জীবন হারুনুর রশীদকে অন্ধ হয়ে কাটাতে হয়েছিল

একাত্তরের ২৮ শে নভেম্বর্। পবিত্র ঈদ উল ফিতরের দিন। যে দিন শান্তি আর আনন্দের দিন। সকালে ক্যাম্পের বুয়ার বানানো সেমাই খেয়ে একটু ঘুরতে বের হয়েছিল মুক্তিযোদ্ধা জসিমদ্দিন। কিন্তু রাজাকারদের আবার ঈদ। জসিম কে ধরে হোটেম ডালিমে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল। ইট দিয়ে পা হাটু ছেচে দেয়া হয়। অন্ডকোষ টেনে ছিড়ে ফেলে মাথা ছেচে ঘিলু বের করা হয়েছিল মুক্তিযোদ্ধা জসিমের্। লাশটা কর্ণফুলী নদীতে ভাসিয়ে দিয়ে মীর কাশেম নাকি বলেছিল ,এটা ঈদের দিনে তার তরফ থেকে আল্লাহর কাছে নজরানা

পাহাড়তলীর ওসমান মাস্টার বঙ্গবন্ধুর আদর্শে বিশ্বাস করতেন। একটু বেশিই সাহসী ছিলেন। পাকিদের সামনে দাড়াইয়া বুক চিতাইয়া বলতেন ,শালার আমিও বাঙ্গালী। কাফনের কাপড় বাইন্ধা যুদ্ধে নামছি দেশ স্বাধীন কইরাই ঘরে ফিরমু। একমাত্র কন্যা সালমা বাবার আদরের ধন ছিল। প্রচন্ড সুন্দরী। একদিন মীর কাশেমের লোকেরা ঘর থেকে ওসমান মাস্টারের মেয়ে সালমা কে তুলে নিয়ে যায়। গন্তব্য সেই ডালিম হোটেল। শোনা যায় ওসমান মাস্টার নাকি গড়িয়ে গড়িয়ে কেদেছিল মীর কাশেমের সামনে। পাত্তাই দেয়নি জানোয়ার্। ১৬ ডিসেম্বর ডালিম হোটেলের সামনের রাস্তায় এক ছেড়া ফাটা পোশাকের আউলা ঝাউলা চুলের পাগলিনী কে হেটে যেতে দেখা যায়। বির বির করে বলছিল,আব্বা আব্বা আব্বা …ওসমান মাস্টারের মেয়ে সালমা ছিল। মানসিক ভারসাম্য হারিয়ে পাগলিনী সালমা…

সে মীর কাশেম আজ নাকি বিশিষ্ট শিল্পপতি। ইসলামি ব্যাংকসব শত শত কোটি টাকার মালিক। ভদ্দরনোক ,দান সওগাত করে। কিসের শিল্পপতি কিসের ভদ্দরলোক

বহু হিসাব বাকি আছে। হারুনুর রশীদের উপড়ে ফেলা চোখের হিসাব, মুক্তিযোদ্ধা জসিম উদ্দিনের থেতলানো মাথার মগজের হিসাব, পাগলিনী সালমার ইজ্জতের হিসাব। ইটস পে ব্যাক টাইম। খুনের বদলে খুন চাই ,ব্লাড ফর ব্লাড। স্বাধীনতার ডাক এসেছে সব সাথীদের খবর দে, মীর কাশেমের গলা চাইপা,ফাসীর দড়ি পড়ায় দে

লেখকঃ ওয়ারিশ আজাদ নাফি

সংগ্রহিতঃ ডি এস ডি গ্রুপ, ফেসবুক হতে। ফুল লিংকঃ https://www.facebook.com/groups/DSDhk/permalink/957890870907499/

‘শান্তি এল’ সোহাগপুরে – bdnews24.com

মুক্তিযুদ্ধের সময় করা মানবতাবিরোধী অপরাধের সাতটি অভিযোগ করা হয় কামারুজ্জামানের বিরুদ্ধে।

এর মধ্যে সোহাগপুরে ১২০ জন পুরুষকে ধরে নিয়ে হত্যার অভিযোগে আপিল বিভাগের চার বিচারপতি সর্বসম্মতভাবে কামারুজ্জামানকে দোষী সাব্যস্ত করেন।

একাত্তরের ২৫ জুলাই ভোরে সোহাগপুর গ্রামের ১২০ জন পুরুষকে হত্যা ও গ্রামের নারীদের ধর্ষণ করা হয়।

এক গ্রামে একসঙ্গে এতজন পুরুষকে হত্যার পর গ্রামের অধিকাংশ নারীকে অকালে বৈধব্য নিতে হয়েছিল, যে কারণে সোহাগপুর ‘বিধবাদের গ্রাম’ হিসেবে পরিচিত হয়ে ওঠে।

via ‘শান্তি এল’ সোহাগপুরে – bdnews24.com.

মৃত্যুঘর ডালিম হোটেল | সকালের খবর

মুক্তিযুদ্ধকালে চট্টগ্রামের আন্দরকিল্লায় ডালিম হোটেল ছিল এক ভয়াবহ নির্যাতনকেন্দ্র। এই কেন্দ্র ‘মৃত্যুঘর’ হিসেবে পরিচিতি পায়। আলবদর সদস্যরা শহরের বিভিন্ন স্থান থেকে মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিকামী মানুষদের ধরে এনে ডালিম হোটেলে আটকে রাখত। সেখানে তাদের ওপর নির্মম নির্যাতন চালানো হতো। কিছু কিছু ব্যক্তিকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। পাশ দিয়ে বহমান কর্ণফুলীতে তাদের মরদেহ ভাসিয়ে দেওয়া হয়। এতে অনেকের মরদেহ চিরকালের জন্য হারিয়ে যায়।

via মৃত্যুঘর ডালিম হোটেল | সকালের খবর.

অন্য রকম ভালবাসা

কেন জানি নিজেকে আর শুন্য মনে হয় না।
কেন জানি নিজেকে একাকি মনে হয় না।
কর্ম ব্যাস্ত রাস্তায় আমি হেটে চলি,
তবুও আমাকে একা মনে হয় না।

লেকের পাশে বসে সিগারেটে সুখ টান দেই।
সেই লেকের পাশ দিয়ে হেটে চলি।
মনে হয় যেন হাঁটতেই থাকি।
তাও আমার একা মনে হয় না।

নাহ, প্রেমেও পড়ি নাই।
লিমন আমাকে প্রশ্ন করেছিলো,
বিনিময়ে, একটা হাসি আমি তাকে উপহার দিয়েছিলাম।
নাহ, আমি প্রেমেও পড়ি নাই।

এ ভাললাগা যে অন্য রকম ভাললাগা,
এ ভালবাসা যে অন্য রকম ভালবাসা।

the new home for rural peoples

the following news is in bangla: http://m.prothom-alo.com/economy/article/295153/গ্রামের-মানুষ-ফ্ল্যাট-পাবে

now about this so called polli janapad, although it is a good idea to provide flats to rural peoples , but let me ask you, as like as other initiatives, will it be away from corruption? or will rural peoples are charged for it? now if you relocate rural people to govt. flat, what will be the future of their current home?
lots of questions to answer. although this type of attempts are good is pro communist or socialistic government but i am afraid it may not work well in bangladesh.
dear respected authorities, need to reconsider this project.

its django time!

today i wrote some codes for dbles project. i am rewriting the dbles with django, and it is quite fun to work with django. the main difference between django and rails, i assume, is the magic. Django uses less ‘magic’ then rails. And as i says a lot, python can be used happily with both windows and linux. On the other hand, rails lacks this heavily.

So what is the todays trouble in code? well it was installing mysql support in django. If in windows, you will need the help of visual studio (2008 is perfect, but have options for 2010 and 2012) to install mysql driver for python.
Now here is the catch, i read that if you have installed mingw, or you have the gcc, you can install the driver. Have not tested it yet. And i forgot to share the link! No problem, will share links next time.
Have fun, Good night
Its gonna rain in Dhaka, dont forget your umbrella tomorrow, and i forgot to bring my umbrella today from office. Whatever!

Robin Williams – Wikipedia, the free encyclopedia

Williams was found unconscious in his home in an unincorporated area just outside Tiburon, California, at around 11:55 am PDT on August 11, 2014, and was pronounced dead at 12:02 pm, age 63.[86][87] The Coroner Division of Marin County suspects the death to be suicide by asphyxia, pending investigation.[88][89] According to his publicist, Williams was “battling severe depression” in the time before his death, though his publicist would not confirm the reports that the death was suicide.[90] A forensic examination and toxicology test is scheduled for August 12, 2014.[91]

Williams’s wife Susan Schneider said “I lost my husband and my best friend, while the world lost one of its most beloved artists and beautiful human beings. I am utterly heartbroken.”[92]

Celebrities paid tribute to Williams, including fellow comedian Steve Martin, who tweeted, “I could not be more stunned by the loss of Robin Williams, mensch, great talent, acting partner, genuine soul.”[93][94] US President Barack Obama said Williams was “one of a kind”, and someone who “ended up touching every element of the human spirit”.[95]

via Robin Williams – Wikipedia, the free encyclopedia.